Monthly Archives: December 2014

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঁচদিনব্যাপী আইটি ফেয়ার শুরু

minister-inauguration-it-fair-2014 cheif-guest-speech-arch-yeafes-osman

(২৭-১২-১৪)ঃ পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে আজ শনিবার থেকে পাঁচ দিনব্যাপী অন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় আইটি ফেয়ার শুরু হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ আইটি ফেয়ার’এর আয়োজক। আজ শনিবার সকাল ১১ টায় ফিতা কেঠে মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান। মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিভাগের চেয়ারম্যান কিসলু নোমানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে মাননীয় প্রতিমন্ত্রী ইয়াফেস ওসমান বলেন, তথ্য প্রযুক্তি গত পাঁচ বছরে ব্যাপক পরিবর্তন এনেছে। তথ্য প্রযুক্তি আমাদের চিন্তা, চেতনা, ভাবনা ও মননে আমূল পরিবর্তন এনেছে। জ্ঞান বিজ্ঞানের উন্নতি সাধনের জন্য তথ্য প্রযুক্তিকে কাজে লাগাতে হবে। ডিজিটাল প্রযুক্তির মাধ্যেমে শিক্ষা, চিকিৎসা, বিনোদন, জ্ঞানার্জন এমনকি দারিদ্র্য বিমোচন করাও সম্ভব। তিনি শিক্ষকদের উদ্দেশ্যে বলেন, শিক্ষার্থীদের সৎ, আদর্শ মানুষ হিসেবে গড়ে তুললে তারাই দেশ বদলে প্রধান ভূমিকা পালন করবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. আল-নকীব চৌধুরী মহোদয় বলেন, আমাদের দেশের মানুষ নতুন নতুন প্রযুক্তিকে সহজভাবে গ্রহণ করছে। এর সুফল আমরা পেতে শুরু করেছি। শিক্ষার্থীদের উদ্ভাবনী শক্তি সারা প্রথিবীতে ছড়িয়ে দিতে হবে। দেশ ও মানুষের উন্নতির জন্য বিজ্ঞানের জ্ঞান অত্যন্ত জরুরি। অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন জেলা পরিষদের প্রশাসক এম সাইদুল হক চুন্নু, ইউনিভার্সাল গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কবি সোহানী হোসেন, ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডীন সাইফুল ইসলাম, প্রক্টর আওয়াল কবির জয় ও ছাত্র উপদেষ্টা ড. মোঃ হাবিবুল্লাহ।

মেলায় ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্ভাবনী জিনিসগুলো প্রজেক্টরের মাধ্যমে প্রদর্শন করা হয়। মোট ৩৭টি ষ্টল বসেছে। মন্ত্রী মহোদয়সহ অতিথিরা মেলা পরিদর্শন করেন। মেলায় সফ্টওয়্যার ডেভেলপমেন্ট, প্রোগ্রামিং কনটেস্ট, হার্ডওয়্যার ও ইন্টার ফেসিং, অ্যাপস ডেভেলপমেন্ট, গেমিং কনটেস্ট, গণিত অলিম্পিয়াড বিষয়গুলো প্রদর্শন করা হয়। শেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। #

বার্তা প্রেরক
( মোঃ ফারুক হোসেন চৌধুরী)
সহকারী পরিচালক
জনসংযোগ দপ্তর
পাবনাবিজ্ঞানওপ্রযুক্তিবিশ্ববিদ্যালয়।
০১৭১১-৯৪২২১২

তথ্য ও যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রীর পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে আগমন

(২০/১২/১৪) ঃ ‘ক্লীন ক্যাম্পাস, গ্রীন ক্যাম্পাস, সেফ ক্যাম্পাস’ কর্মসূচির মাধ্যমে শিক্ষাঙ্গন যেমন পরিস্কার পরিছন্ন হবে তেমনি ছাত্রছাত্রীদের মূল্যবোধ ও নৈতিকতাও বাড়বে বলে মন্তব্য করেছেন মাননীয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী জনাব জুনাইদ আহমেদ পলক মহোদয়। এই কর্মসূচির ফলে শিক্ষার্থীদের মনের শুদ্ধতা ফিরে আসবে। একই সাথে নিজ ক্যাম্পাসকে মনের মধ্যে ধারন করে শিক্ষার্থীরা প্রতিষ্ঠানকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। আজ শনিবার পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় পরিদর্শন কালে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি এ কথা বলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের রিজেন্ট বোর্ডের সম্মানিত সদস্য জনাব জুনাইদ আহমেদ পলক মহোদয় নবীন এই বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়নের জন্য শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীদের একযোগে কাজ করার উপর গুরুত্ব দেন। তিনি বিভিন্ন বিভাগ, ল্যাবরেটরি, ক্লাসরুম ঘুরে দেখেন দেখেন। মাননীয় মন্ত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ও প্রশাসনিক অগ্রগতির কার্যক্রম দেখে সন্তষ্টি প্রকাশ করেন। মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জনাব জুনাইদ আহমেদ পলক মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে স্বাধীনতা চত্বরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।
বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. আল-নকীব চৌধুরী মাননীয় প্রতিমন্ত্রী মহোদয়কে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ও প্রশাসনিক উন্নয়ন কর্মকান্ড অবহিত করে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার শিক্ষারমান উন্নয়নে যেভাবে দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে তাতে অল্পদিনে এটি উত্তরবঙ্গের অক্সফোর্ড হিসেবে পরিচিতি লাভ করবে। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন প্রক্টর আওয়াল কবির জয়, ছাত্র উপদেষ্টা ড. মোঃ হাবিবুল্লাহ, ডীন সাইফুল ইসলাম, ড. ওমর ফারুক, নুরে আলম, কিসলু নোমান, রতন কুমার পাল, বিজন কুমার ব্রহ্ম, ফজলে রাব্বি, ফারুক হোসেন চৌধুরী, রফিকুল ইসলামসহ সিনিয়র শিক্ষক ও কর্মকর্তাসহ শিক্ষার্থীরা । #

বার্তা প্রেরক

(মোঃ ফারুক হোসেন চৌধুরী)
সহকারী পরিচালক
জনসংযোগ দপ্তর
পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।
মোবাইল-০১৭১১৯৪২২১২
ইমেইল- pro_pstu@yahoo.com

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে মহান বিজয় দিবস উদযাপন

???????????????????????????????

(১৬/১২/২০১৪)ঃ যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবসের কর্মসূচি উদযাপন করলো পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার। আজ মঙ্গলবার সকালে বিজয় র‌্যালী বের হয়। র‌্যালী ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ শেষে স্বাধীনতা চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। স্বাধীনতা চত্বরের বেদীতে ফুল দিয়ে মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান মাননীয় ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. আল-নকীব চৌধুরী মহোদয়। এরপর ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান বঙ্গবন্ধু পরিষদ, শিক্ষক সমিতি, কর্মকর্তাবৃন্দ, কর্মচারী সমিতি, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ, ছাত্রমৈত্রী ও ছাত্রছাত্রীরা। এরপর আলোচনা সভায় মাননীয় ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. আল-নকীব চৌধুরী বলেন, ১৬ ডিসেম্বর বাঙালী জাতির অনন্য গৌরবের দিন। সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালী, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আহবানে সাড়া দিয়ে বাঙালী জাতি দীর্ঘ তেইশ বছরের রাজনৈতিক সংগ্রাম ও নয় মাস মরণপণ যুদ্ধ করে বুকের রক্তের বিনিময়ে ১৬ ডিসেম্বর চুড়ান্ত বিজয় অর্জন করেছিল। মুক্তিযোদ্ধাদের আত্মত্যাগ পৃথিবীতে অবিস্মরনীয় হয়ে থাকবে। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার মধ্য দিয়েই স্বাধীনতার চেতনা বাস্তবায়িত হবে। সেজন্য শিক্ষার্থীসহ নতুন প্রজম্মকে দেশপ্রেমে উজ্জীবিত হতে হবে। হতে হবে আদর্শিক নাগরিক।

প্রক্টর আওয়াল কবির জয়ের সঞ্চালনায় আরো বক্তব্য দেন ছাত্র উপদেষ্টা ড. মোঃ হাবিবুল্লাহ, ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডীন ও শিক্ষক সমিতির সভাপতি সাইফুল ইসলাম ও অতিরিক্ত রেজিস্ট্রার বিজন কুমার ব্রহ্ম। উপস্থিত ছিলেন শিক্ষকদের মধ্যে ড. আব্দুল আলীম, মোঃ কামরুজ্জামন, রাশেদ কবির, নুরে আলম, হাসিবুর রহমান, কর্মকর্তাদের মধ্যে গোলজার হোসেন, কামরুল হাসান, হাফিজুর রহমান মোল্লা, ফজলে রাব্বী, ফারুক হোসেন চৌধুরী, রফিকুল ইসলাম, হারুনর রশিদ ডন প্রমুখ। #

বার্তা প্রেরক

(মোঃ ফারুক হোসেন চৌধুরী)
সহকারী পরিচালক
জনসংযোগ দপ্তর
পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।
মোবাইল-০১৭১১-৯৪২২১২

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালন

DSC03587(১৪/১২/২০১৪)ঃ আজ ১৪ ডিসেম্বর বিন¤্র শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় মুক্তিযুদ্ধে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মরণ করলো পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার। আজ রোববার সকালে শোক র‌্যালী বের করা হয়। র‌্যালি ক্যাম্পাস প্রদক্ষিন শেষে স্বাধীনতা চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। স্বাধীনতা চত্বরের স্মৃতি সৌধে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় ভাইস -চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. আল- নকীব চৌধুরী মহোদয়। এরপর ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান বঙ্গবন্ধু পরিষদ, শিক্ষক সমিতি, কর্মকর্তাবৃন্দ, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ ও ছাত্র ছাত্রীরা। স্বাধীনতার জন্য আত্মদানকারী বুদ্ধিজীবীদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। এরপর আলোচনা সভায় মাননীয় ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. আল-নকীব চৌধূরী বলেন, ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় বুদ্ধিজীবীরা মেধা, মনন ও লেখনীর মাধ্যমে স্বাধীনতার সংগঠকদের প্রেরণা জুগিয়েছেন। বাংলাদেশের অভ্যুদয়ে রেখেছেন গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা। তাই পাকিস্তানী হানাদার বাহিনী ও তাদের এদেশের দোসররা বাঙালীকে মেধাশূন্য করার জন্য দেশের শ্রেষ্ঠ সন্তানদের বিজয়ের একদিন আগে হত্যা করে। ন্যাক্কার জনক এই হত্যাকান্ডে জড়িতদের বিচারের জন্য বিশেষ ট্রাইবুনাল গঠন করা দরকার। মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের সকল শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে স্বাধীনতা বিরোধীদের প্রতিহত করতে হবে। শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসের শোককে শক্তিতে পরিণত করে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার জন্য শিক্ষার্থীদের প্রতি আহবান জানান তিনি।
প্রক্টর আওয়াল কবির জয়ের সঞ্চালনায় এতে আরো বক্তব্য দেন শিক্ষক সমিতির সভাপতি সাইফুল ইসলাম, ছাত্র উপদেষ্টা ড. মোঃ হাবিবুল্লাহ। শিক্ষকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলা বিভাগের চেয়ারম্যান ড. এম আব্দুল আলীম, ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ কামরুজ্জামান, রাশেদ কবির, আবু সুফিয়ান,হাসিবুর রহমান , নুরে আলম, কিসলু নোমান, কর্মকর্তাদের মধ্যে বিজন কুমার ব্রহ্ম, কামরুল হাসান, হাফিজুর রহমান মোল্লা, ফজলে রাব্বি, ফারুক হোসেন চৌধূরী, রফিকুল ইসলাম প্রমুখ। #

বার্তা প্রেরক

(মোঃ ফারুক হোসেন চৌধুরী)
সহকারী পরিচালক, জনসংযোগ দপ্তর
পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।
মোবাইল-০১৭১১৯৪২২১২
ইমেইল-pro_pstu@yahoo.com